Wednesday, August 10
Shadow

আলোচনা ও আমল

বেহেশতে তোমাদের দেওয়া হবে আদা মিশ্রিত পানীয়।”

বেহেশতে তোমাদের দেওয়া হবে আদা মিশ্রিত পানীয়।”

আলোচনা ও আমল
"বেহেশতে তোমাদের দেওয়া হবে আদা মিশ্রিত পানীয়।” আল কোরান, সুরা দাহর “And they shall drink therein a cup tempared with Zan Jabil ( Ginger) আদার মতো নগ্ণ্য কন্দমুল যা বাংলাদেশের ঝোপঝাড়ে জন্মে,  তার স্থান হয়েছে বেহেশতের পানীয়তে? অদ্ভুত ব্যাপার না? বিপুল  উৎসাহে কোন কাজে লেগে পড়া কে আমরা বলি আদাজল খেয়ে লাগা। এই বাগধারা টা কেন এসেছে? আদা পানি খেয়ে দেখেছি অতি অখাদ্য। আমেরিকায় Ginjer Beer নামে এক ধরনের পানীয় আছে। আদা চিনি ক্রিম অব টারটার  পানিতে মিশিয়ে ইষ্ট দিয়ে ফার্মেন্টড করে এই পানীয় তৈরি। সেটাও আখাদ্য। ( অখাদ্য না বলে অপেয় বলা উচিত। তবে অখাদ্য শুনতে ভালো লাগে) আধার রসায়ন হচ্ছে আদায় আছে শতকরা 2 ভাগ “Essential oil” যার প্রধান অংশ Gingiberene আধার ঝাঁজালো ব্যাপারটা আসে Zingerene থেকে কিছু লবণ থাকে (Potassium Oxalate) আর থাকে Terpenoids ( Comphen...
দুনিয়াতে আমরা এসেছি পরিক্ষা দিতে এটা হচ্ছে জীবনের সবচেয়ে বড় বাস্তবতা

দুনিয়াতে আমরা এসেছি পরিক্ষা দিতে এটা হচ্ছে জীবনের সবচেয়ে বড় বাস্তবতা

আলোচনা ও আমল
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ। 🌹-----দুনিয়াতে আমরা এসেছি পরিক্ষা দিতে এটা হচ্ছে জীবনের সবচেয়ে বড় বাস্তবতা,,,,,,🌹 -হিন্দি সিরিয়াল,,, মিউজিক,, ভিডিও গেম,, রং বেরংঙের পানীয়,, হাজারো বিনোদন সব সময় চেষ্টা করে বাস্তবতা ভুলিয়ে দিতে,,,আমরা নিজেদেরকে প্রতিদিন নানা ধরনের বিনোধনে মধ্যে অবদ্ধ করে রাখে জীবনের কষ্ট ভুলে থাকার চেষ্টা করি,,, আমরা যতই বিনোদনে গা ভাসাই, ততই বিনোদনের প্রতি অসক্ত হয়ে যায়,,,,, যতক্ষন বিনোদনে ডুবে থাকি,,,, ততক্ষন জীবনটা আনন্দময় মনে হয়,,,, তারপর বিনোদন শেষ হয়ে গেলেই আবসাদ,,,বিরক্তি,, এক ঘেয়ামি ঘিরে ধরে,, ধীরে ধীরে একসময় জীবনের প্রতি ক্ষুব্ধ হয়ে উঠি,," কেন আমার নাই??কিন্তু ওর আছে!!!" কেন আমার বেলাই এই রকম হয়??? অন্যের কেন এরকম হয়না!!! এই সব অসুস্থ পশ্ন করে আমরা আমাদের মানসিক অশান্তির জ্বালানী যোগায়,,,,, অথচ আমরা ভুলে যায় যে এই দুনিয়াটা শুধু পরিক্ষার হল,,,...
কীভাবে দু’আ করলে আল্লাহ কবুল করবেন? (দু’আ কবুলের শর্তাবলী ও আদবসমূহ)

কীভাবে দু’আ করলে আল্লাহ কবুল করবেন? (দু’আ কবুলের শর্তাবলী ও আদবসমূহ)

আলোচনা ও আমল
কীভাবে দু'আ করলে আল্লাহ কবুল করবেন?(দু'আ কবুলের শর্তাবলী ও আদবসমূহ)(১) দৃঢ় বিশ্বাস রেখে দু'আ করা :♦ রাসূল সা. বলেন, "হে মানুষেরা! তোমরা যখন আল্লাহর কাছে চাইবে তখন কবুল হওয়ার দৃঢ় বিশ্বাস নিয়ে চাইবে; কারণ কোনো বান্দা অমনোযোগী অন্তরে দু'আ করলে আল্লাহ তার দু'আ কবুল করেন না।" (সহিহুত তারগিব ২/১৩৩, হাসান)(২) প্রথমে নিজের জন্য দু'আ করা :♦ আবু আইয়ূব আনসারি রা. বলেন, "নবি সা. যখন দু'আ করতেন তখন নিজেকে দিয়ে শুরু করতেন।" (আহমাদ ৫/১২১, মাজমাউয যাওয়াইদ ১০/১৫২, হাসান)(৩) অনুপস্থিতের জন্য দু'আ করলে কবুল হয় :♦ রাসূল সা. বলেন, "কোনো মুসলিম যখন তার কোনো অনুপস্থিত ভাইয়ের জন্য দু'আ করে তখন আল্লাহ তার দু'আ কবুল করেন।" (মুসলিম ৪/২০৯৪)(৪) আল্লাহর ইসমে আযম (মহিমান্বিত নাম) দিয়ে দু'আ করা :♦ এক ব্যক্তি সালাতের বৈঠকে আল্লাহর ইসমে আযম দিয়ে দু'আ করছিলেন। তখন রাসূল সা. বলেন, "নিশ্চয়ই সে আল্লাহর কাছে তাঁর ইসমে আযম ধরে ...
ধৈর্য ইসলামের সৌন্দর্য

ধৈর্য ইসলামের সৌন্দর্য

আলোচনা ও আমল
ইসলাম মানবতার ধর্ম। মানব চরিত্রের উৎকর্ষ সাধনই এর মূল লক্ষ্য। এ মহান লক্ষ্যে আল্লাহ রাব্বুল আলামিন আদি যুগ থেকে নবী-রাসুল পাঠিয়েছেন। সর্বশেষ ও সর্বশ্রেষ্ঠ নবী মুহাম্মাদুর রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে পাঠিয়েছেন মানবতার উৎকর্ষের পূর্ণতা প্রদানের জন্য। মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) বলেন, ‘বুইছতু লিউতাম্মিমা মাকারিমাল আখলাক’, অর্থাৎ আমাকে পাঠানো হয়েছে সুন্দর চরিত্রের পূর্ণতা প্রদানের জন্য। (মুসলিম ও তিরমিজি)। এ প্রসঙ্গে আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তাআলা কোরআন কারিমে বলেন, ‘ওয়া ইন্নাকা লাআলা খুলুকিন আজিম’, অর্থাৎ হে মুহাম্মদ (সা.), নিশ্চয় তুমি মহান চরিত্রে অধিষ্ঠিত। (পারা: ২৯, সূরা-৬৮ কলম, আয়াত: ৪)। মানব চরিত্রের উত্তম গুণাবলির অন্যতম হলো ধৈর্য ও সহিষ্ণুতা। পবিত্র কোরআনে স্থানে স্থানে মহান আল্লাহ নিজেকে ধৈর্যশীল ও পরম সহিষ্ণু হিসেবে পরিচয় প্রদান করেছেন। ধৈর্যের আরবি হলো ...
হতাশ হবেন না আল্লাহ ধৈর্যশীলদের সাথে আছেন

হতাশ হবেন না আল্লাহ ধৈর্যশীলদের সাথে আছেন

আলোচনা ও আমল
হতাশ হবেন নাঃ- ১) যখন রক্ত সম্পর্কীয় কেউ আপনার সাথেপ্রতারণা করবে, ভেঙ্গে পড়বেন না । মনে রাখবেন, হজরত ইউসুফ (আ:) আপনভাইদের দ্বারা প্রতারিত হয়েছিলেন । ২) যখন পিতামাতা আপনার প্রতিপক্ষ হয়েদাঁড়াবেন, ভেঙ্গে পড়বেন না । মনে রাখবেন, হজরত ইব্রাহিম (আ:) নিজপিতার দ্বারাই আগুনে নিক্ষিপ্ত হয়েছিলেন । ৩) যখন ঘোর বিপদে পতিত হয়ে বের হয়ে আসারআর কোন উপায়ান্তর খুঁজে না পান, আশারশেষ আলোটুকুও দেখতে না পান, ভেঙ্গেপড়বেন না। মনে রাখবেন, হজরত ইউনুস আ: মাছের পেটেরঅন্ধকার প্রকোষ্ট থেকেও উদ্ধার হয়েছিলেন । ৪) যখন আপনার বিরুদ্ধে অপবাদ আরোপ করাহবে আর গুজবে দুনিয়া ছড়িয়ে যাবে, ভেঙ্গেপড়বেন না, এসবে কান দিবেন না । মনে রাখবেন, হজরত আয়শা সিদ্দিকা (রা:)এর বিরুদ্ধেও অপবাদ আরোপ করা হয়েছিল । ৫) যখন আপনি অসুস্থ হয়ে পড়বেন, ব্যাথায়কতরাতে থাকবেন, ভেঙ্গে পড়বেন না ।মনে রাখবেন, হজরত আইয়ুব (আ:)...
ওজু করার সময় গুরুত্বপূর্ণ দোয়া যা সকল মুমিনের মনে মনে বলা উচিত

ওজু করার সময় গুরুত্বপূর্ণ দোয়া যা সকল মুমিনের মনে মনে বলা উচিত

আলোচনা ও আমল
🔴মাইন্ডফুল ওজু🔴 শিক্ষাঃ♥♥""""ওজু করার সময় যখন আমরা ডান হাত ধুই তখন আমরা মনে মনে দুয়া করতে পারি যে হে আল্লাহ আমার এই দুই হাত দিয়ে যেনো কোনো খারাপ কাজ না হয়। ♥♥""""কুলি করার সময় দুয়া করতে পারি যে হে আল্লাহ আমার এই মুখ দিয়ে যেনো কোনো খারাপ কথা,গীবত,পরনিন্দা,চোগলখোরি,মিথ্যা না বের হয়,আমার এই মুখ দিয়ে যেনো তাই বের হয় যা তোমাকে সন্তুষ্ট করে,এই ওজুর পানির মাধ্যমে আমার মুখের বাহ্যিক ও অভ্যন্তরীণ নোংরা বের করে দিন হে রব্ব। ♥♥""""নাকে পানি দেয়ার সময় দুয়া করতে পারি যে হে আল্লাহ এই নাক দিয়ে যেন আমি জান্নাতের সুঘ্রাণ পাই ইয়া রব্ব। ♥♥""""মুখে পানি দেওয়ার সময় দুয়া করতে পারি যে হে আল্লাহ আমার এই মুখকে তুমি কিয়ামতের দিন উজ্জল করে দিও প্রভু একে তুমি অন্ধকারাচ্ছন্ন করিও না মালিক। ♥♥""""ডান হাত ধোয়ার সময় দুয়া করতে পারি যে হে আল্লাহ আমার এই হাতে আমাকে আমলনামা লা...
কবরের আজাবের কারন গুলি কি কি?

কবরের আজাবের কারন গুলি কি কি?

আলোচনা ও আমল
আসসালামু আলাইকুম ♦কবরের আজাবের কারন গুলি কি কি? যে সকল গুনাহের কারন জাহান্নামে যেতে হয় সে সব গুনাহের কারনে কবরেও আযাব হয়ে থাকে। এর মধ্যে এমন কিছু গুনাহ রয়েছে যা কবর আযাবের কারন হবে। যেমন: ✔১- চোগলখোরি বা গীবত করা। একের কথা অন্যকে লাগিয়ে সম্পর্ক নস্ট করা বা দুর্নাম করা ✔২- পেশাবের ছিটা থেকে আত্মরক্ষা না করা। ✔৩-অবৈধভাবে যৌন চর্চা বা যিনায় লিপ্ত থাকা। ✔৪- সুদি কারবার করা ✔৫- মিথ্যা কথা বলা ✔৬- কুরআনকে পরিত্যাগ করা অর্থাৎ কুরআন পাঠ ছেড়ে দেয়া। পড়তে না শিখা, মাসের পর মাস কুর আন খুলে না দেখা, ভুলে বসে থাকা ইত্যাদি। ♦কবরের আযাব থেকে বাচার আমল/উপায়গুলি গুলি কি? ✔১- যে কোন গুনাহ থেকে বেচে থাকার চেস্টা করা, বিশেষ করে যে সব কারনে কবরে আযাব হয় তা থেকে বেচে থাকা। ✔২- রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কবরের আযাব থেকে মুক্তি লাভের জন্য তাশাহুদে পাঠ করার জন্য যে দুয়া শ...
রাসুল (সাঃ) কখনো আজান দেন নাই কেন

রাসুল (সাঃ) কখনো আজান দেন নাই কেন

আলোচনা ও আমল
রাসুল (সাঃ) কখনো আজান দেন নাই।।কিন্তু তিনি আজান দিতে বলেছেন। কিন্তু তিনি কেন আজান দেন নাই? একদিন আল্লাহর রাসুল (সঃ) সাহাবিদেরকে বললেন সবাইকে কিভাবে নামাজের জন্য আহবান করা যায়।একজন সাহাবি বললেন, "হে রাসুলুল্লাহ সাঃ, আমরা ঢোল বাজিয়ে সবাইকে নামাজের জন্য ডাকতে পারি।" তখন ঢোল নিষিদ্ধ হয় নাই। আরেকজন বললেন,"আগুন জালিয়ে এটা করা যায়। মানুষে আগুনের ধোঁয়া দেখে বুঝবে নামাজের জন্য ডাকছে।"আরেকজন বললেন,"শিঙ্গা ফুৎকারে সবাইকে ডাকা যায়।" কিন্তু আল্লাহর রাসুল সাঃ এর কারো পরামর্শই পছন্দ হলো না। সবাই নিজের বাড়িতে চলে গেলেন। সেদিন রাতে যায়েদ ইবনে আব্দুল্লাহ স্বপ্নে দেখেন, এক ব্যক্তি শিঙ্গা বিক্রি করছেন। তিনি তখন ঐ ব্যাক্তির কাছে একটা শিঙগা কিনতে চাইলেন। লোকটি জিজ্ঞেস করলেন, এটি দিয়ে আপনি কি করবেন? তখন যায়েদ ইবনে আব্দুল্লাহ বলেন সবাইকে নামাজের জন্য ডাকবো। শিঙ্গা বিক্রেতা তখন বললেন, আমি এমন কিছু বাক...
সবরের গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা এবং জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে ধৈর্যের প্রয়োজনীয়তা:

সবরের গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা এবং জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে ধৈর্যের প্রয়োজনীয়তা:

আলোচনা ও আমল
সবরের গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তাঃ সবর বা ধৈর্য ধারণ করা আকিদার ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। জীবনে বিপদ-মুসিবত নেমে এলে অস্থিরতা প্রকাশ করা যাবে না। বরং ধৈর্য ধারণ করতে হবে। পাশাপাশি আল্লাহর নিকট প্রতিদান পাওয়ার আশা করতে হবে। ইমাম আহমদ রহ. বলেন, “আল্লাহ তায়ালা কুরআনে নব্বই স্থানে সবর সম্পর্কে আলোচনা করেছেন।” হাদিসে বর্ণিত হয়েছে,الصبر ضياء“সবর হল জ্যোতি।” (মুসনাদ আহমদ ও মুসলিম) উমর রা. বলেন, “সবরকে আমরা আমাদের জীবন-জীবিকার সর্বোত্তম মাধ্যম হিসেবে পেয়েছি।” (সহিহ বুখারি) আলী রা. বলেন, “ঈমানের ক্ষেত্রে সবরের উদাহরণ হল দেহের মধ্যে মাথার মত।” এরপর আওয়াজ উঁচু করে বললেন, “যার ধৈর্য নাই তার ঈমান নাই।” আবু সাঈদ খুদরি রা. হতে বর্ণিত। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন,مَا أَعْطَى اللَّهُ أَحَدًا مِنْ عَطَاءٍ أَوْسَعَ مِنَ الصَّبْرِ“আল্লাহ তায়ালা ধৈর্য...
জাহান্নাম থেকে মুক্তির ১০ আমল।

জাহান্নাম থেকে মুক্তির ১০ আমল।

আলোচনা ও আমল
জাহান্নাম থেকে মুক্তির ১০ আমলঃ পবিত্র কোরআন ও হাদিসে জাহান্নামের আগুনের উত্তাপের কিছু বিবরণ দেওয়া হয়েছে। এক আয়াতে মহান আল্লাহ ইরশাদ করেন, ‘এটা তো লেলিহান অগ্নি, যা গায়ের চামড়া খসিয়ে দেবে।’ (সুরা মাআরিজ, আয়াত : ১৫-১৬) অন্য আয়াতে এসেছে, ‘তাদের মাথার ওপর ঢেলে দেওয়া হবে ফুটন্ত পানি, যা দিয়ে তাদের চামড়া ও পেটের ভেতর যা আছে তা বিগলিত করা হবে।’ (সুরা হজ, আয়াত : ১৯-২০) রাসুলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেন, ‘এক হাজার বছর জাহান্নামকে উত্তপ্ত করা হয়েছে। ফলে তার আগুন রক্তিম বর্ণ ধারণ করেছে। অতঃপর পুনরায় এক হাজার বছর উত্তাপ দেওয়ার ফলে এটি সাদা রং গ্রহণ করেছে। তারপর আরো এক হাজার বছর উত্তাপ দেওয়ার ফলে এর আগুন কৃষ্ণবর্ণ হয়ে গেছে। সুতরাং জাহান্নাম এখন সম্পূণরূপে গাঢ় কালো তমসাচ্ছন্ন।’ (তিরমিজি শরিফ) মহানবী (সা.) ইরশাদ করেন, ‘জাহান্নামের মধ্যে সেই ব্যক্তির শাস্তি সবচেয়ে হালকা হবে, যার...